অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার ‘রোল মডেল’ বদরুদ্দোজা বাবু

জাওয়াদ ইসলাম:

বদরুদ্দোজা বাবু। কাজ করছেন আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান এমআরডিআই-এর ইনভেস্টিগেশন জার্নালিজম হেল্পডেস্ক এর প্রধান হিসেবে। কিন্তু তিনি নিজেকে আপাদমস্তক অনুসন্ধানী সাংবাদিক হিসেবেই দেখেন। এতে তার অবদান চোখে পড়ার মতো; দুর্নীতিবাজদের মাথাব্যথার কারণও বটে। সমাজে জেঁকে বসা দুর্নীতি- জিপিএ ৫ বিক্রি, সরকারি অর্থ আত্মসাৎ এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় এর অর্থ আত্মসাৎ নিয়ে তার রয়েছে শক্তিশালী অনুসন্ধানী প্রতিবেদন।নিজ কর্মেই হয়ে উঠেছেন অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার ‘রোল মডেল’।

দুর্নীতিবাজদের গোপন তথ্য ফাঁসে তার জুড়ি মেলা ভার। তার ২১ বছরের সাংবাদিকতার জীবনে এমন অসংখ্য সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন।সম্প্রতি স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক ফোরামের এক আয়োজনে এসে শিক্ষার্থীদের শুনালেন এমন অনেক সাহসী গল্প। বললেন, অনুসন্ধানের নানা অলি-গলি।সাংবাদিকতায় পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় উদ্ভুদ্ধ করেন নিজের কিছু অভিজ্ঞতা তুলে ধরার মাধ্যমে।


বদরুদ্দোজা বাবু পড়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা বিভাগে।বিশ্ববিদ্যালয় জীবন থাকেই লেখালেখির শুরু। তিনি বিচিত্রা, অন্বেষণ এবং সাপ্তাহিক ২০০০ এ কাজ করেছেন। কিন্তু তার মূল লক্ষ্য ছিল মূলধারার টেলিভিশনে কাজ করা। তারই সূত্র ধরে কাজ করেছেন এনটিভি, যমুনা টিভি এবং মাছরাঙার মতো টেলিভিশনে। মাছরাঙা টিভিতে ‘অনুসন্ধান’ নামক টিভি শো শুরু করেন যা কিনা দুর্নীতিবাজদের গোমর ফাঁস করতে থাকে।