• আজ বৃহস্পতিবার, ১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং ; ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ ; ৬ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী
  • ‘অযোগ্য কাউকে নেতা বানানো হবে না’

    ফাস্ট বিডিনিউজ ২৪ ●

    পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনে কিছুটা দেরি হবে জানিয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান বলেছেন, আমাদের অভিভাবক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ অনুযায়ী কমিটি পূর্ণাঙ্গ করা হবে। এ ছাড়া কমিটি গঠনের আগে মহানগর দক্ষিণের অন্তর্গত আটজন এমপি, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ দলের সব সহযোগী সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে আমরা আলোচনা করব। তবে একটা বিষয় মনে রাখতে হবে আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা, মন্ত্রী কিংবা এমপিদের তদবিরে অযোগ্য কাউকে নেতা বানানো হবে না। রাজনৈতিক অভিজ্ঞতা ও পারিবারিক ব্যাকগ্রাউন্ড ছাড়া কেউ কমিটিতে আসবে না।

    সম্প্রতি দৈনিক আমাদের সময়ে সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন। মেহেদী হাসান বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী এবং ত্যাগী শিক্ষার্থীদের ছাত্রলীগের নতুন কমিটিতে স্বাগত জানানো হবে। আমাদের সংগঠনের আদর্শের সঙ্গে মিল আছে এমন মেধাবী শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সচেতনতা অবলম্বন করব আমরা। কারণ প্রধানমন্ত্রী অনেক সময় নিয়ে নিজে যাচাই-বাছাই করে আমাদের এই কমিটি দিয়েছেন। এ জন্য আমাদের দায়িত্ব অনেক বেশি। আমাদের কারণে প্রধানমন্ত্রী বা আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হোক- এটা আমরা কখনই চাই না।

    এর আগে পল্টন থানা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি থেকে ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সহ-সভাপতি হন নড়াইলের ছেলে মেহেদী। ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্বও পালন করেছিলেন কিছুদিন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের ছাত্রলীগকে ফের ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করে মেহেদী বলেন, ছাত্রলীগের যে ঐতিহ্য রয়েছে, অতীতের যে সুনাম রয়েছে, তা ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করব আমরা। এর আগে কিছু কিছু এলাকায় পকেট কমিটি হয়েছে। কোথাও কোথাও জামায়াত-শিবিরের অনুপ্রবেশ ছিল। অছাত্ররাও ছাত্রলীগের প্রবেশ করেছিল। শেখ হাসিনার হাত আমাদের মাথার উপরে থাকলে আশা করি এবারের কমিটিতে এ রকম আর হবে না।

    মেহেদী বলেন, আমাদের কমিটির জন্য একটা বড় চ্যালেঞ্জ আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। নির্বাচনের আগে বিএনপি, জামায়াত ও তাদের সমমনারা নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়। ছাত্রলীগ তাদের কোনো এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে দেবে না। আওয়ামী লীগের নির্দেশে মহানগর দক্ষিণের প্রতিটি নেতাকর্মী বিরোধী জোটের সব ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করবে।এক প্রশ্নের জবাবে মেহেদী বলেন, ছাত্রলীগের আগের কমিটি আর আমাদের কমিটি এক নয়। এর আগে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ভিন্ন ভিন্ন নিজস্ব বলয় তৈরি করে রাজনীতি করলেও এবার এমন কিছু হওয়ার সুযোগ নেই। কারণ এই কমিটি আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী নিজে দিয়েছেন। কাজেই আমরা সবাই এক হয়ে কাজ করছি।

    সূত্রঃ দৈনিক আমাদের সময়

    Close