আকর্ষণীয় বডি বানানোর খাবার তালিকা

body fitness

সাদমান সাদিক ●
শরীরকে পেশিবহুল করতে হলে এর জন্য নিয়মিত সঠিক খাবার ও ব্যায়াম জরুরি। নিয়মিত ব্যায়াম পেশিকে বড় হতে সাহায্য করে। তবে শুধুমাত্র বেশি ব্যায়াম করলেই আপনি আপনার ইচ্ছে পূরণ করতে পারবেন না। এর জন্য ব্যায়াম এর পাশাপাশি আপনাকে সঠিক খাবারও খেতে হবে। সুঠাম শরীর গঠনে ব্যায়াম কাজ করে ২০ ভাগ আর ৮০ ভাগ সঠিক খাবার। স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট টপ টেন হোম রেমিডি জানিয়েছে পেশি তৈরির জন্য কোন কোন খাবার খাদ্যতালিকায় রাখা জরুরি।

‌১. ডিম

ডিমের মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন। এটি পেশি গঠনে সাহায্য করে। এছাড়াও ৯ টি এসেনশিয়াল এসিড, কোলাইন, সঠিক ফ্যাট এবং ভিটামিন ডি থাকে ডিমে। ওটমিল কার্বোহাইড্রেটের চমৎকার উৎস হচ্ছে ওটমিল। এগুলো পেশিকে পুনর্গঠন করতে সাহায্য করে।
এছাড়াও ডিমের কুসুম ভিটামিনের আরও একটি ভালো উৎস। এতে রয়েছে ভিটামিন-এ, ভিটামিন-ই, ভিটামিন-কে ও ভিটামিন-বি। এই ভিটামিনগুলো বিপাক বাড়াতে সাহায্য করে এবং চর্বিকে শক্তিতে রূপ দেয়। প্রতিদিন এক অথবা দুটি ডিম খেলে তা পেশি বাড়াতে সাহায্য করতে পারে।

২. দুধ

পেশি তৈরির জন্য দুধ একটি ভালো খাবার। এর মধ্যে রয়েছে ভিটামিন ও মিনারেল। রয়েছে ভালো কার্বোহাইড্রেট ও চর্বি। এ ছাড়াও এটি আপনার হাড়কে করে দৃঢ়। এ জন্য নিয়মিত দুধ পান করা ভালো। এটি পেশি তৈরির জন্য বেশ ভালো কাজ করে। বিভিন্ন গবেষণায় বলা হয়, ব্যায়ামের পর এক গ্লাস দুধ খাওয়া শরীরের জন্য বেশ উপকারি।

৩. মধু 

শরীরে শক্তি বৃদ্ধির জন্য মধু খুবই উপকারি। প্রতিদিন অন্তত পুরো এক চামচ মধু খেলে দারুণ উপকার পাবেন। চা কিংবা ফলের সালাদের সঙ্গেও এটি খাওয়া যায়। এছাড়াও মধু বহু রোগের প্রতিষেধক।

৪. মুরগির মাংস

মুরগির মাংস ভালো প্রোটিনের উৎস। এর মধ্যে পেশি বাড়ানোর বহু উপাদান রয়েছে। যেমন : ভিটামিন-বি, আয়রন, নায়াসিন, সেলেনিয়াম ও জিংক। তাই পেশি বাড়াতে চাইলে মুরগির মাংস, বিশেষ করে মুরগির বুকের মাংস খেতে পারেন।

আরও পড়ুন- সুঠাম ও আকর্ষণীয় বডি বানানোর উপায়

৫.গরুর মাংস

গরুর মাংসে রয়েছে উচ্চমাত্রার এমাইনো এসিড যা ইনসুলিনের সাথে কাজ করে পেশীর বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। তাছাড়া গরুর মাংস পেশীর বৃদ্ধিতে সাহায্যকারী উপাদান- আয়রন, জিংক ও বি ভিটামিন থাকে।

৬. পালংশাক

সবজির মধ্যে পালংশাক পেশি তৈরির জন্য বেশ ভালো সাহায্য করে। এটি পেশি পুনর্গঠনে সাহায্য করে। একটি গবেষণায় দেখা গেছে, এর মধ্যে থাকা সাইটোয়েকডাইস্টেরয়েডস নামে উপাদান পেশির বৃদ্ধিকে ২০ ভাগ পর্যন্ত বাড়িয়ে দিতে পারে। এছাড়াও এর মধ্যে থাকা ক্যালসিয়াম পেশিকে শিথিল করে এবং আয়রন পেশি তৈরিতে সাহায্য করে।

ফাস্ট বিডিনিউজ ২৪/এআইএফ