ওসিদের কর্মকাণ্ডে হাইকোর্টের ক্ষোভ

high court

ফাস্ট বিডিনিউজ ২৪ ●high courtওসিদের কর্মকাণ্ডে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন হাইকোর্ট। সাতক্ষীরার শ্যামনগরের এক ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তির মামলা গ্রহণ না করায় এ ক্ষোভ প্রকাশ করেন আদালত। এ ঘটনায় সংশ্নিষ্ট থানা পুলিশকে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তির জন্য গৃহীত পদক্ষেপ এক সপ্তাহের মধ্যে প্রতিবেদন আকারে হাইকোর্টে দাখিল করতেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ মঙ্গলবার এই আদেশ দেন।

শুনানির শুরুতেই রাষ্ট্রপক্ষে সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মোহাম্মদ সাইফুল আলম আদালতে বলেন, সাতক্ষীরার শ্যামনগর থানার ওসির বিরুদ্ধে ভাংচুরের ঘটনায় হাইকোর্টে রিটকারী ফজলুর করিমের মামলা না নেওয়ার অভিযোগের আংশিক সত্যতা পাওয়া গেছে। পাশাপাশি মামলা না নিয়ে স্থানীয় সালিশের মাধ্যমে বিষয়টি নিষ্পত্তির চেষ্টা হয়েছে।

এ পর্যায়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে হাইকোর্ট বলেন, ‘ওসি মামলা নিলেন না কেন? আমরা রুল দিয়ে দেখি, কেন তিনি মামলা নিলেন না। ওসি সাহেবরা সব জায়গায় কোর্ট বসিয়ে দেন। তারা কি সালিশ করতে বসেছেন যে সুবিধামতো হলে মামলা নেবেন। অথচ টাকা ছাড়া থানায় একটা জিডিও হয় না।’

হাইকোর্ট আরও বলেন, ওসিরা যেখানে সেখানে কোর্ট বসান, রাতে কোর্ট বসান। এত সাহস তারা কোথায় পান? তারা নিজেরা বিচার বসান কিভাবে?

এ ধরনের ঘটনা পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ করে মন্তব্য করে হাইকোর্ট আরও বলেন, ১৩ হাজার পুলিশ যারা থানায় বসেন, তাদের জন্য গোটা পুলিশের বদনাম হতে পারে না। অনেক পুলিশ খুব কস্ট করে জীবন-যাপন করেন। অথচ অনেকের দেখি ৪-৫টা করে বাড়ি। দেশটা কি চোরের দেশ হয়ে গেছে?

এরপর হাইকোর্ট এক সপ্তাহের মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত ফজলুর করিমের মামলা না নেওয়া সংক্রান্ত বিষয়ে শ্যামনগর থানা পুলিশের গৃহীত পদক্ষেপ লিখিত আকারে জমা দিতে নির্দেশ দেন।