কেন অ্যাপল পণ্য বর্জনের সিদ্ধান্ত নিল চীন?

Apple iphone user

ইমতিয়াজ ফারহান ●
সম্প্রতি চীনা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের সঙ্গে টেক জায়ান্ট গুগলের চুক্তি বাতিলের ঘটনায় তোলপাড় চলছে প্রযুক্তি দুনিয়ায়। মার্কিন ও চীনের মধ্যে ব্যবসায়ীক যুদ্ধ তুঙ্গে। সম্প্রতি আবার চীনে অ্যাপল পণ্য বর্জন করার শোর উঠেছে। তবে এবার কারণটা সম্পূর্ণ আলাদা।

রবিবার রয়টার্সে প্রকাশিত একটি রিপোর্টে জানানো হয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্টের নির্দেশে চীনা কোম্পানি হুয়াওয়ের সাথে হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার লেনদেন বন্ধ করেছে গুগলের পেরেন্ট কোম্পানি এলফাবেট। এর পরেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন চীনের সাধারন জনগণ। এরপর সেখানে সব ধরনের মার্কিন পণ্য বর্জন করার আহ্বান জানানো হয়। চীনে অন্যতম জনপ্রিয় মার্কিন ব্র্যান্ড অ্যাপল। এ ঘটনার পর চীনাবাসী তাদের সোশ্যাল মিডিয়ায় মার্কিন কোম্পানিগুলির বিরুদ্ধে ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করে।

চীনের সোশ্যাল মিডিয়া Weibo তে অ্যাপল এর বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই চড়াও হয়েছেন চীনের নাগরিকরা। চীনের এক ব্যাক্তি সেখানে লিখেছেন যে- “আমি এই সিদ্ধান্ত দেখে হিনমন্যতায় ভুগছি। একটু টাকা জমিয়ে আমি আমার আইফোন বিক্রি করে নতুন স্মার্টফোন কিনবো।” চীনের অপর আরেক ব্যাক্তি সেখানে লিখেছেন “অ্যাপল আইফোন এর থেকে হুয়াওয়ে স্মার্টফোনে ভালো ফিচার পাওয়া যায়। এতো ভালো একটা কোম্পানি থাকা সত্বেও আমরা কেন অ্যাপল পণ্য ব্যবহার করি?”

ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেওয়া এ সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করেছে চায়না। “বিদেশী কোম্পানি হয়রানি” করার অভিযোগও আছে তার বিরুদ্ধে। ইতিমধ্যেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বন্ধ হয়েছে সব ধরনের হুয়াওয়ের পণ্য বিক্রি।

প্রসঙ্গত চীনে ইতিমধ্যেই ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, গুগল, টুইটার এর মতো সব ধরনের মার্কিন পরিষেবা সমূহ নিষিদ্ধ। টুইটার এর পরিবর্তে চীনের মানুষ Weibo নামের এই মাইক্রো ব্লগিং ওয়েবসাইট ব্যবহার করেন।

ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ২০ টিরও বেশি চীনের কোম্পানি ঘোষনা করেছে তারা আরও বেশি করে হুয়াওয়ে পণ্য কেনা শুরু করবে।

ফাস্ট বিডিনিউজ ২৪/এআইএফ

পাঠকের মতামত:

Please enter your comment!
Please enter your name here

six + 14 =