জেনে নিন, কিভাবে কানের ক্ষতি না করেই হেডফোন ব্যবহার করবেন

Headphones

দীর্ঘ সময় কানে হেডফোন গুঁজে রাখলে শ্রবনশক্তি ক্রমশ হ্রাস পেতে পারে। সবসময় কানে হেডফোন গুঁজে রাখলে, তা কানের জন্য কতটা ক্ষতিকর এ সম্পর্কে আমাদের সকলেরই মোটামুটি ধারণা রয়েছে। তবে কিছু নিয়ম মেনে হেডফোন ব্যবহার করলে শ্রবনশক্তি বাঁচানো সম্ভব। তবে চলুন জেনে নেওয়া যাক হেডফোন ব্যবহারের কয়েকটি কৌশল, যেগুলি মেনে চলে শ্রবনশক্তি বাঁচানো সম্ভব…

সঠিকভাবে হেডফোন ব্যবহারের কৌশল

১। হেডফোন বা ইয়ারফোনে কখনওই সর্বোচ্চ ভলিয়্যুমে কিছু শুনবেন না। এতে কানের পর্দায় ক্ষতি হয়। ইয়ারফোনের মাধ্যমে এই আওয়াজ সরাসরি কানে প্রবেশ করে। তাই এ বিষয়ে বিশেষ ভাবে সচেতন থাকা জরুরি। প্রতিটি ফোনেই হেডফোনের ভলিয়্যুমের শ্রবনযোগ্য মাত্রা নির্দেশ করা থাকে। পারলে ঐ নির্দেশ মেনে চলুন।

২। একটানা ৩০ মিনিটের বেশি ইয়ারফোন বা হেডফোন ব্যবহার করবেন না। মোবাইলে কোনও সিনেমা দেখতে হলে ৩০-৪০ মিনিট পর পর মিনিট পাঁচেক বিরতি নিন। এই মিনিট খানেক শ্রবনইন্দ্রিয়কে বিশ্রাম দিন।

৩। ​যে সংস্থার মোবাইল ব্যবহার করছেন, ঠিক সেই সংস্থার, সেই মডেলটির ইয়ারফোনই ব্যবহার করুন। প্রতিটি মোবাইল ফোন প্রস্তুতকারী সংস্থাই তাদের নির্দিষ্ট মোবাইল ফোনের জন্য নির্দিষ্ট ইয়ারফোন তৈরি করে। ফোন থেকে বেরনো রশ্মির তরঙ্গ, শব্দ তরঙ্গের কম্পন— ইত্যাদির উপর অঙ্ক কষেই ইয়ারফোনের তরঙ্গ, ক্ষমতা ইত্যাদি ঠিক করা হয়। তাই ইয়ারফোন খারাপ হলে নির্দিষ্ট মডেলের সঠিক ইয়ারফোন কিনে তবেই ব্যবহার করুন।

৪। রাস্তায় হাঁটার সময়, রাস্তা বা রেল লাইন পেরনোর সময় কখনওই হেডফোন বা ইয়ারফোন ব্যবহার করবেন না। বাইরে বেরিয়ে গান শুনতে হলে, তা শুনুন বাসে, ট্রেনে উঠে বা কোনও এক জায়গায় বসে। গাড়ি বা বাইক চালানোর সময় কানে ইয়ারফোন লাগাবেন না। কারণ, এর ফলে আসে পাশের গাড়ির হর্ন আপনি শুনতে পাবেন না। এতে দুর্ঘটনার ঝুঁকি বেড়ে যেতে পারে। সূত্র: জি নিউজ

ফাস্ট বিডিনিউজ ২৪/এআইএফ