তারেককে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে: তথ্যমন্ত্রী

তথ‌্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, দেশের আইন ও আদালতকে সমুন্নত রাখার স্বার্থেই বিএনপি নেতা তারেক রহমানকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছে সরকার। তিনি বলেন, ‘এখানে প্রতিহিংসার কোনো কারণ নেই। তারেক রহমান যদি মনে করেন তিনি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হচ্ছেন, তাহলে তো তাঁর নিজেরই আদালতে আত্মসমর্পণ করার কথা। কিন্তু তাঁর দুর্নীতি ও হত‌্যা মামলার অপরাধ এত সুস্পষ্ট যে তাঁর সেই সৎসাহস নেই।’

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের প্রচার উপকমিটির সভার শুরুতে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও দলটির অন‌্যতম মুখপাত্র হাছান মাহমুদ আরও বলেন, ‘তারেক রহমান যে দুর্নীতি করেছে তা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের এফবিআই। তাই বাংলাদেশ সরকার তার দুর্নীতি উদঘাটন করেছে এমন কথা বলার সুযোগ নেই। আর একুশে আগস্টের গ্রেনেড হামলার সাথে তাঁর সম্পৃক্ততা সাক্ষ‌্য-প্রমাণে সুস্পষ্টভাবে প্রমাণিত হয়েছে। একজন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হিসেবে বিএনপিরই তাঁকে বাদ দেওয়া উচিত ছিল। কিন্তু তার পরিবর্তে তাঁরা একজন দুর্নীতি ও ফৌজদারি হত‌্যা মামলার দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে রাজনৈতিক সুরক্ষা দেওয়ার অপচেষ্টা করছে।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দুর্নীতি বা ফৌজদারি মামলায় দণ্ড হলে যেসব দেশের সঙ্গে চুক্তি আছে, সেখান থেকে আসামিদের ফিরিয়ে আনা হয়, কিন্তু যুক্তরাজ‌্যের সঙ্গে চুক্তি নেই বলে সরকার সেদেশে চিঠি দিয়েছে।’

মন্ত্রী আরও বলেন, বিএনপি নেতারা সরকারের সমালোচনা করতে পারছেন, এর থেকেই বোঝা যায় দেশে বাক স্বাধীনতা আছে ।