mosquito

আমরা সকলেই জানি, সামান্য একটি মশা আপনার জন্য মারাত্মক বিপদ ডেকে আনতে পারে! মশা থেকেই ছড়ায় চিকুনগুনিয়া, ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়ার মতো মারাত্মক রোগ। কিন্তু এতকিছু সত্ত্বেও মশা যেন আপনাকে একটু বেশিই কামড়ায়। কখনও ভেবে দেখেছেন, এমনটা কেন হয়? এটা কি নিছকই মনের ভুল, নাকি সত্যি সত্যিই কিছু মানুষকে অন্যদের থেকে মশা বেশি কামড়ায়! আসুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক কেন এমনটি হয়…

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় অবস্থিত ইউসি ডেভিস ইউনিভার্সিটির একদল গবেষকদের মতে, কিছু মানুষের শরীরে এমন কিছু রাসায়নিক বেশি পরিমাণে থাকে যা মশার খুবই প্রিয়। আর এই প্রিয় রাসায়নিকের গন্ধে মশারা ওই সব মানুষদের প্রতি বেশি আকৃষ্ট হয়। আমরা অনেক সময় ঠাট্টা করে বলি, যাদের রক্ত মিষ্টি, তাঁদেরই মশা বেশি কামড়ায়। বিষয়টি ঠাট্টা করে বলা হলেও আসল বিষয়টা অনেকটা তেমনই। অন্তত এমনটাই দাবি মার্কিন গবেষকদের।

ইউসি ডেভিস ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক, গবেষক লার্ক কফি জানান, মানুষের শরীরের গন্ধ এবং নিঃশ্বাসের সঙ্গে নির্গত কার্বন ডাই-অক্সাইডের মাধ্যমে মশা আকৃষ্ট হয়। একেক মানুষের শরীরের গন্ধ একেক রকমের হয়। আবার কোনও কোনও মানুষের শরীরের গন্ধ মশাকে বেশি আকৃষ্ট করে। আমাদের ত্বক থেকে নিঃসৃত ল্যাকটিক অ্যাসিডের গন্ধ মশাকে বেশি আকৃষ্ট করে। তাই যাঁদের শরীর থেকে অন্যদের তুলনায় বেশি ল্যাকটিক অ্যাসিড নির্গত হয়, তাঁদের প্রতি মশা বেশি আকর্ষণ বোধ করে, আর তাঁদেরকেই মশা বেশি কামড়ায়।

এছাড়াও দীর্ঘ পরীক্ষার পর গবেষকরা জানিয়েছেন, যাঁদের রক্তের গ্রুপ ‘ও’ (O Blood group), মশা তাঁদেরকেই বেশি কামড়ায়। এ ছাড়াও যাঁদের শরীর অতিরিক্ত মেদযুক্ত, গর্ভবতী মহিলাদের বা যাঁদের নিয়মিত মদ্যপানের অভ্যাস রয়েছে, তাঁদের মশা অন্যদের তুলনায় বেশি কামড়ায়।

ফাস্ট বিডিনিউজ ২৪/এআইএফ