হজযাত্রার পূর্ব প্রস্তুতি

খালেদ মহিউদ্দীন:

ইসলামের ৫টি স্তম্ভের অন্যতম একটি হজ। প্রতিবছর বাংলাদেশ থেকে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক মানুষ হজ পালন করতে পাড়ি জমান মক্কা নগরীতে। এবছর ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে হজে যাওয়ার প্রস্তুতি। এ প্রস্তুতির অন্যতম অনুষঙ্গ হলো হজ পালন ও সৌদি আরবে থাকা-খাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী সংগ্রহ করা। দেশ থেকেই এসব সামগ্রী কেনাকাটার ঝামেলা চুকিয়ে ফেলা উচিত। রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মার্কেটে পেতে পারেন হজ পালনের প্রয়োজনীয় সামগ্রী।

বায়তুল মোকাররম মার্কেটে যেসব সামগ্রী মিলছে তা ইন্দোনেশিয়া, তুর্কি, চায়নাসহ বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করা। এ ছাড়া দেশীয় সামগ্রীও আছে। এখানে এহরাম বাঁধার টাওয়াল বা কাপড় সেটের দাম পড়বে ৫০০ থেকে ৫ হাজার ৫০০, এহরাম বাঁধার বেল্ট ১০০ থেকে ১ হাজার, তুর্কি স্পেশাল টাওয়াল ও কাপড় সেট ৭ হাজার থেকে ৭ হাজার ৫০০, পাসপোর্ট ব্যাগ ৩০ থেকে ৬০, মিনাব্যাগ ৬০ থেকে ৪৫০, জুতা রাখার ব্যাগ ১০ থেকে ২০, পাথর রাখার ব্যাগ ১০ থেকে ২০, প্লাস্টিক জায়নামাজ ২০০ থেকে ৩০০, কাটার বক্স ২০০ থেকে ৫০০, হজ গাইড ৮০ থেকে ৩০০ টাকা।

সৌদি আরব বিষয়ক ভ্রমণ বই ৯৬, কাঁধের ব্যাগ ৫০ থেকে ১০০, মহিলা এহরাম সেট ৮০০ থেকে ৪ হাজার ৫০০, হিজাব ১৫০ থেকে ৭০০,  মহিলাদের চুল বাঁধার টুপি ৫০ থেকে ১৫০, হাত মোজা ও পা মোজা ৫০ থেকে ২০০, হাওয়ার বালিশ ১৫০ থেকে ১ হাজার, বোডিং হোল্ডার ৩০০ থেকে ১ হাজার ২০০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

সানক্যাপ ১০০ থেকে ২০০, পায়ের তাবেয়া ২০০, চামড়ার মোজা ৪০০ থেকে ১ হাজার, তায়াম্মুমের মাটি ৫০ থেকে ১০০, মিসওয়াক ২০ থেকে ৫০, সালোয়ার ২৫০ থেকে ৭৫০, ছাতা ১৫০ থেকে ৬০০, ছোট কোরআন শরিফ ১০০ থেকে ৪৫০ টাকা মিলছে।

এছাড়া হজে যেতে প্রয়োজনীয় সামগ্রী যেমন- গন্ধবিহীন সাবান, শ্যাম্পু, তসবি, পাঞ্জাবি, লুঙ্গি, গামছা, টাওয়াল, টুপি,  আতর, জুতা, ভ্যাসলিন, বোরকা ইত্যাদি বায়তুল মোকাররম মার্কেটে পাওয়া যায়।

ফাস্ট বিডিনিউজ২৪/কেএস