• আজ রবিবার, ১৯শে আগস্ট, ২০১৮ ইং ; ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ ; ৭ই জ্বিলহজ্জ, ১৪৩৯ হিজরী
  • সময় ।। নবনী আহমেদ

    ফাস্ট বিডিনিউজ ২৪ ● 

    সময় 

                            —————– নবনী আহমেদ

    time copy
    ফুটফুটে সুন্দর বাচ্চাটিকে দেখে মায়া এড়াতে না পেরে আকিজ উদ্দিন বাচ্চাটির গালে হাত দিতে এগিয়ে গেলেন।তার হাত বাচ্চাটির গাল  স্পর্শ করার আগেই একটু দূরে দাঁড়ানো কোট টাই পড়া লোকটি চিৎকার করে উঠলেন।

    :এই দারোয়ান! তুমি আমার মেয়ের গায়ে হাত দিচ্ছ কেন?সারাদিন ময়লা লাঠি হাতে বসে থাকো।কত্ত জীবাণু তোমার হাতে! বয়স হয়েছে কিন্তু একটুও কমন সেন্স নেই নাকি?

    এই লোকের নাম রবিন চৌধুরি।ছোট বাচ্চা মেয়েটির বাবা।সেই সাথে আকিজ উদ্দিন এর অফিসের বড় কর্মকর্তা।
    স্যার এর কথাতে নিজের ভুল এর জন্য মাফ চাইলেন বয়স্ক আকিজ।নিজের অক্ষমতা বুঝতে পেরে সরিয়ে নিলেন বাড়িয়ে দেয়া হাত।

    আজ দশ বছর পর…..

    রবিন সাহেব তার মেয়েকে নিয়ে অনেকক্ষণ থেকে বসে আছেন ডাক্তার আন্নির চেম্বার এর সামনে। তার মেয়েটি  বেশ  কয়েকদিন থেকে অসুস্থ।কিছুতেই সারছে না অসুস্থতা।আজ বাধ্য হয়ে ডাক্তার এর কাছে নিয়ে এসেছেন। অবশেষে তাদের সিরিয়াল মিলল।
    চেম্বারে ঢুকে মেয়ের সমস্যা গুলো খুলে বললেন তিনি।কিছু টেস্ট আর প্রেসক্রিপশান লিখে রবিন সাহেবের হাতে দিলেন ডাঃ আন্নি।মেয়ের ইশারাতে বাধ্য হয়ে তিনি বললেন,

    :ম্যাম,আমার মেয়ে এবার মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা দিবে।আপনি যদি একটু কিছু শিখিয়ে দিতেন কিভাবে পড়তে হবে,এই আর কি!

    ডাঃ আন্নি রবিন সাহেবের মেয়েকে হাসিমুখে কাছে টেনে নিয়ে কিছু উপদেশ, বুদ্ধি আর সাহস দিয়ে বিদায় জানালেন তাদেরকে।
    ডাঃ আন্নিকে ধন্যবাদ দিয়ে চেম্বার থেকে বের হতে গিয়ে রবিন সাহেবের চোখ আটকে গেল দেয়ালে টানানো এক ছবির দিকে।
    এ্যাপ্রোন গায়ে ডাঃ আন্নি যে মানুষ টার কাঁধে হাত রেখে দাঁড়িয়ে আছেন তিনি আর কেও নন। রবিন সাহেবের অফিসের সেই আকিজ দারোয়ান। ছবির নিচে লিখা,
    “বাবার সাথে আন্নি”

     
    Close