• আজ বৃহস্পতিবার, ১৯শে জুলাই, ২০১৮ ইং ; ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ ; ৫ই জ্বিলকদ, ১৪৩৯ হিজরী
  • ২০ রাকআতপন্থিদের মক্কা-মদীনাকে কেন্দ্র করে খোড়া প্রশ্ন ও তার জবাব-পর্ব ৬

    ফাস্ট বিডিনিউজ ২৪ ●

    Madeena-3

    রিজওয়ান সালাফি ● – ১ :  ২০ রাকআত সহীহ না হলে মক্কা-মদীনায় পড়ে কেন ? * জবাব : ————— ৮০১ হিজরী থেকে শুরু করে, ১৩৪৩ হিজরী পর্যন্ত মোট ৫৪২ বছর ধরে মক্কার “মসজিদুল হারামে” “১ সালাত ৪ জামাতে” আদায় করার বিদ’য়াত যদি এতদিন চলতে পারে, তবে তারাবীর ক্ষেত্রে সহীহ হাদিসের বিপরীত আমল চালু থাকা কোন ব্যাপার না। * এখন থেকে মাত্র ৭০ বছর আগে “৪ জামাত” উঠে গেছে, সহীহ হাদীস অনুযায়ী “১ জামাত” আদায় করা হচ্ছে। * তাহলে ৫৪২ বছরে কি বিশাল পরিমান মানুষ, এই বিদ’য়াতী আমল করে পৃথিবী থেকে বিদায় নিয়েছে ? * কাজেই আমাদের সঠিক হাদীস অনুসরন করা উচিৎ, মক্কা-মদীনা নয়। * তেমনি হঠাৎ হয়তো এমন একজন সংস্কারক আসবেন, যিনি সঠিকটা চালু করবেন। *

    * আরেকটি প্রশ্ন : ২০ রাকাত কিভাবে চালু হোল ? * উ: ২০ রাকাত চালু হবার পিছে প্রধানতঃ ৩ টা কারন ছিলঃ- ক) দীর্ঘ কিয়ামে কষ্ট ও রাকাত বাড়ানো। বর্ধিত রাক‘আত সমূহ পরবর্তীকালে সৃষ্ট। ইমাম ইবনু তায়মিয়াহ (রহঃ)বলেন, রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) রাত্রির ছালাত ১১ বা ১৩ রাক‘আত আদায়করতেন। পরবর্তীকালে মদীনার লোকেরা দীর্ঘ ক্বিয়ামে দুর্বলতা বোধ করে। ফলেতারা রাক‘আত সংখ্যাবৃদ্ধি করতে থাকে, যা ৩৯ রাক‘আত পর্যন্ত পৌঁছে যায়’। ইবনু তায়মিয়াহ, মাজমূ‘ ফাতাওয়া (মক্কা: আননাহযাতুল হাদীছাহ ১৪০৪/১৯৮৪), ২৩/১১৩। * খ) বেশী নেকীর আশায় ‘রাতের সালাত দুই দুই করে’ এই হাদীসের অন্য ব্যাখ্যা। অনেক বিশেষজ্ঞ, ২৩ রাক‘আত পড়েন ও বলেন শত রাক‘আতের বেশীও পড়াযাবে, যদি কেউ ইচ্ছাকরে। দলীল হিসাবে ইবনু ওমর (রাঃ) বর্ণিত প্রসিদ্ধ হাদীছটি পেশ করেনযে, ‘রাত্রির সালাত দুই দুই (مَثْنَىمَثْنَى) করে। অতঃপর ফজর হয়ে যাবারআশংকা হ’লে এক রাক‘আত পড়। তাতে পিছনের সব ছালাত বিতরে (বেজোড়ে) পরিণত হবে’।

    * এখানে, ২ রাকাত করে মোট ৮ রাকাত পড়ার কথা বলা হয়েছে, মহানবী(সঃ) যতটুকু পড়েছেন। * ২ রাকাত করে অসীম রাকাত সালাত পড়ার কথা বলা হয়নি। * আর পরবর্তীতে মদীনার মানুষই এটাকে সবোর্চ্চ রাকাতে নিয়ে যায়। * পরে বর্তমান রাজতন্ত্র এটাকে ২০ রাকাতে পরিনত করেন। কারন এটা হতে পারে, ৩৯ কিংবা ৪১ রাকাত এমন ভাবে প্রতিষ্ঠিত হয়ে গিয়েছিল যে, সেখান থেকে ৮ রাকাতে প্রত্যাবর্তন হয়তো তাদের জন্য অসম্ভব হয়ে গিয়েছিল। তবে রাজতাতান্ত্রিক শাসক গোষ্ঠি যে এটা খারাপ উদ্দেশ্যে করেছে, এমন না(মুত্তাফাক্ব ‘আলাইহ, মিশকাত হা/১২৫৪, ‘বিতর’ অনুচ্ছেদ-৩৫)। * অতএব রাক‘আতের কোনসংখ্যাসীমা নেই এবং যত রাক‘আত খুশী পড়া যাবে, এটা সঠিক না।

    (এই লেখার ভিন্ন মত ছাপা হবে)

    ফাস্ট বিডিনিউজ ২৪/ই ই

    Close