• আজ রবিবার, ২২শে জুলাই, ২০১৮ ইং ; ৭ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ ; ৮ই জ্বিলকদ, ১৪৩৯ হিজরী
  • বোলারদের দাপটে প্রথম দিনটা বাংলাদেশের

    ফাস্ট বিডিনিউজ ২৪ ●

    Srilanka test 2017

    শততম টেস্ট। উৎসবের আমেজ দিনের শুরু থেকেই। সেই আমেজে দারুণ বোলিং করে রাঙিয়ে তুললেন বাংলাদেশের বোলাররা। দিন শেষে চান্দিমাল ও হেরাথ একটু অস্বস্তি দিলেও কলম্বো টেস্টের প্রথম দিনটা বাংলাদেশেরই।

    টস জিতে প্রথম দিন শেষে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৭ উইকেটে ২৩৮ রান। যদিও পুরো ৯০ ওভার খেলা হয়নি। আলো স্বল্পতার কারণে ৮৩.১ ওভারের পরই দিনের খেলা শেষ হয়।

    টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই অস্বস্তির মধ্যে ছিল স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা। প্রথম সেশনে তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া শ্রীলঙ্কাকে ধাপে ধাপে আলোর মুখ দেখিয়েছেন দিনেশ চান্দিমাল।

    শেষ বেলায় তার সঙ্গে শক্ত জুটি গড়েন অধিনায়ক রঙ্গনা হেরাথ। দুজনেই দিন শেষে অপরাজিত। ২১০ বলে ৮৬ রানে অপরাজিত চান্দিমাল। যার মধ্যে রয়েছে চারটি চারের মার। হেরাথ অপরাজিত ৬৩ বলে দুই চারে ১৮ রানে।

    বাংলাদেশের হয়ে দারুণ বোলিং করেছেন পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। ১৫ ওভারে ৩২ রানে নিয়েছেন তিনি দুটি উইকেট। সেখানে ১৫ ওভারে ৫৮ রানে দুই উইকেট পেয়েছেন মিরাজ। সাকিব একটি উইকেট পেয়েছেন। তবে ইকোনমি মুস্তাফিজের সমান। ২০.১ ওভারে তিনি দিয়েছেন মাত্র ৪৩ রান। শুভাশীষ ও তাইজুল ভাগাভাগি করেছেন একটি উইকেট।অভিষিক্ত মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ৪ ওভার বল করে দিয়েছেন ১১ রান। উইকেটের দেখা পাননি।

    কলম্বোর পি সারা ওভাল ইনিংসের নবম ওভারেই বাংলাদেশের প্রথম সাফল্য এনে দেন পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। এর আগে শততম টেস্টে বোলিংয়ের শুরুতেই নিজের প্রথম দুই ওভারে রান দেননি মুস্তাফিজ। মাঝের এক ওভারে রান দেননি শুভাশীষও। শুরুর তিন ওভারে থমকে যায় শ্রীলঙ্কার রানের চাকা।

    নিজের পঞ্চম ওভারের চতুর্থ বলেই দিমুথ করুনারত্নকে ফেরান পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। ৮.৪ ওভারে মুস্তাফিজের বলে মেহেদীর হাতে ক্যাচ দেন তিনি। সাজঘরে ফেরার আগে লঙ্কান এ ওপেনার সাত রান করেন। এর পর দলীয় ২৪ রানের মাথায় মেহেদী হাসানের বলে মুশফিকের হাতে স্ট্যাম্পিং হন কুশল মেন্ডিস। ব্যক্তিগত পাঁচ রান করে আউট হন তিনি।

    এর পর দলীয় ৩৫ রানের মাথায় দলের তৃতীয় সাফল্য এনে দেন স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ। তার বিষাক্ত স্পিনে ওপেনার উপুল থারাঙ্গা ১১ রান করে সৌম্যর হাতে ক্যাচ দেন। ইনিংসের ২৭.৪ ওভারের মাথায় চতুর্থ উইকেটে সাফল্য এনে দেন শুভাশীষ। আসেলা গুনারত্নে ১৩ রান করে শুভাশীষের বলে এলবিডব্লিউর শিকার হন। এর পর লাঞ্চ বিরতি।

    লাঞ্চের পর মিরাজের তালুবন্দী হয়েছিলেন ভয়ংকর ব্যাটসম্যান দিনেশ চান্দিমাল। তাইজুলের বলে ক্যাচ নিয়েছিলেন মিরাজ। তবে রিপ্লেতে দেখা যায় বল আগে মাটি স্পর্শ করেছে। ফলে এ যাত্রায় বেঁচে যান চান্দিমাল। পরের তুলে নেন টেস্ট ক্যারিয়ারের ১২তম ফিফটি।

    সিলভার সঙ্গে দিনেশ চান্দিমালের পঞ্চম উইকেট জুটি বেশ জমে উঠেছিল। শেষ অবধি তাতে বাধ সাধেন বাংলাদেশের স্পিনার তাইজুল ইসলাম। বোল্ড করেন ৫৪ বলে ৫ চারে ৩৪ রান করা সিলভাকে। শ্রীলঙ্কার স্কোর তখন ৫ উইকেটে ১৩৬ রান।

    ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে ডিকওয়েলাকে নিয়ে এগুতে থাকেন অভিজ্ঞ চান্দিমাল। এই জুটি থেকে আসে ৪৪ রান। সবাই যখন ব্যর্থ এই জুটি ভাঙতে, তখন আবির্ভাব সাকিব আল হাসানের। ৫৯.১ ওভারে ডিকওয়েলার স্ট্যাম্প উপড়ে ফেলেন তিনি। ৩৭ বলে চার চারে ৩৪ রান করে সাজঘরে ফেরেন ডিকওয়েলা।

    সপ্তম উইকেট জুটিতে চান্দিমালের সঙ্গে তাল মেলাতে পারেননি পেরেরা। তাকে বিদায় করেন দুর্দান্ত বোলিং করা মুস্তাফিজুর রহমান। ৬৪.৪ ওভারে মুস্তাফিজের বলে সৌম্য সরকারের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন ২০ বলে নয় রান করা পেরেরা। শ্রীলঙ্কার দলীয় রান তখন ৭ উইকেটে ১৯৫।

    ফাস্ট বিডিনিউজ ২৪/এ আই

    Close