কাউছার আলী খান স্বাধীনতা বিরোধী নন- মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ওহাব (মিন্টু)

রুপদিয়া(যশোর)প্রতিনিধি,
আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে যশোর সদর উপজেলাধীন কচুয়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মুনসেফপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এডহক কমিটির সভাপতি ও কচুয়া ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি চিত্রনায়ক শাহের খান (রবি) নিজ বাড়িতে সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেন। সংবাদ সম্মেলনে কচুয়া ইউনিয়নের সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল ওহাব (মিন্টু) বলেন কাউছার আলী খান স্বাধীণতা বিরোধি নন।
যশোর সদর উপজেলার কচুয়া ইউনিয়নের সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল ওহাব (মিন্টু) জানান, তার জানা মতে ১৯৭১ সালে রাজাকারের যে কমিটির তালিকা হয়েছিল তাতে কোথাও কাউছার আলী খানের নাম নেই। তাছাড়া কখনও কাওসার আলী খানকে দেশবিরোধী কোন কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হতেও দেখিনি বলে দাবি করেন।
এদিকে কাওছার আলী খানের ছেলে মুনসেফপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এডহক কমিটির সভাপতি ও কচুয়া ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি চিত্রনায়ক শাহের খান রবি আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছেন। একই সাথে প্রার্থী হিসেবে প্রচার-প্রচারণা চালোনায় একটি সড়যন্ত্রকারী কু-চক্রী মহল তার পিতা কাওছার আলী খান কে রাজাকার বলে চিহ্নিত করার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।
রবি বলেন, আমি মানুষের জন্য কাজ করতে চাই। আমার প্রতি মানুষের ভালোবাসা দিনদিন বেড়ে চলেছে, ঠিক তখনই একদল কু-চক্রী মহল আমার বাবাকে রাজাকার বদনাম দিয়ে আমাকে মানুসিক চাপে ফেলতে চেষ্টা করছে। আমি বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধাণমন্ত্রী শেখ হাসিনার আদর্শে বিশ্বাসী। আজ প্রমান হলো আমার বাবা স্বাধীণতা বিরোধি নন। আমি মানুষের কল্যানে নিজেকে বিলিয়ে দিতে চাই। প্রধাণমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে নৌকা প্রতিক দিলে আমি নৌকার যথাযথ মর্যাদা রাখবো।